মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৬ জুলাই ২০১৭

যোগাযোগ শাখা

উপ-পরিচালক (যোগাযোগ)

১.    উপ-পরিচালক (যোগাযোগ) তাঁর চেইন-অব-কমান্ড মেনে বাহিনী প্রধানকে বাহিনীর যোগাযোগ বিষয়ে সার্বিক সহোযোগিতা প্রদান করবেন।

২.    বাহিনীর সকল ইউনিটে দাপ্তরিক, আবাসিক টেলিফোন, ফ্যাক্স, মোবাইল সংযোগ বিষয়ে উদ্যোগ নিবেন।

৩.    বাহিনীতে বেতার যোগাযোগের ব্যবস্থা সচল রাখা এবং এর সম্প্রসারনের উদ্যোগ গ্রহণ করবেন।

৪.    ব্যাটালিয়নের সিগন্যাল ব্যক্তিবর্গের প্রশিক্ষন বিষয়ে ব্যাটালিয়নসমূহকে পরার্মশ দেবেন।

৫.    বাহিনীর যোগাযোগ ব্যবস্থা সচল  ও কার্যকরি রাখার জন্য তিনি পরিকল্পনা গ্রহণ করবেন।

৬.    তিনি যোগাযোগ বিষয়ে কারিগরি নির্দেশনা, সিগন্যাল পরিকল্পনা, সিগন্যাল আদেশ এবং প্রশিক্ষণ নির্দেশনা তৈরী এবং জারি করবেন।

৭.    তিনি ব্যাটালিয়ন সমূহের সিগন্যাল সরঞ্জামাদি এবং এগুলোর দায়িত্বপ্রাপ্ত জনবলের অপারেশনাল এবং কারিগরি সক্ষমতা যাচাইয়ের জন্য ব্যাটালিয়নসমূহে কারিগরি পরিদর্শনের ব্যবস্থা নেবেন।

৮.   সিগন্যাল ইউনিট/সাব ইউনিটে কারিগরি নিয়ন্ত্রন আরোপ করবেন।

৯.    ফটোগ্রাফিক সরঞ্জামাদি সংক্রান্ত যাবতীয় বিষয়ের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবেন।

১০.   কেন্দ্রীয়ভাবে সিগন্যালসের ব্যক্তিবর্গের প্রশিক্ষণের বিষয়ে পরিকল্পনা তৈরী ও বাস্তবায়ন করবেন।

১১.   যোগাযোগ বিষয়ে সেনাবাহিনী, বিমান বাহিনী, নৌ বাহিনী, পুলিশ, বিজিবি এবং টিএন্ডটি এর সাথে লিয়াজো রক্ষা করবেন।

১২.   যোগাযোগ সরঞ্জামাদির যথাযথ চাহিদা নিরুপনপূর্বক সেগুলো ক্রয়ের উদ্যোগ নিবেন।

১৩.   বাহিনীর টেলিফোন, ফ্যাক্স, ইন্টারনেট খাতে বাৎসরিক আর্থিক চাহিদা যথাসময়ে বাজেট শাখায় প্রেরণ করবেন।

১৪.   বাহিনীর যোগাযোগ সংক্রান্ত অন্যান্য কার্যক্রম তদারকি করবেন।

 

যোগাযোগ শাখার কার্যক্রমঃ

 

১.    আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর দাপ্তরিক আবাসিক টেলিফোন, ফ্যাক্স, মোবাইল ও বেতার যোগাযোগ সিষ্টেম কার্যকরী অবস্থায় রাখা ও রক্ষনাবেক্ষন।

২.    বিভিন্ন দূর্যোগের সময় যোগাযোগ ব্যবস্থা সচল রাখা।

৩.        সরকারী নীতিমালা অনুযায়ী মন্ত্রণালয় হতে চাহিদা অনুযায়ী দাপ্তরিক, আবাসিক ও ফ্যাক্স নম্বরের প্রশাসনিক অনূমোদন আনা ও সংযোগের ব্যবস্থা গ্রহনের কার্যক্রম।

৪.    দাপ্তরিক/আবাসিক টেলিফোনে এডিএসএল সংযোগ ও বিচ্ছিন্ন করণ কার্যক্রম।

৫.    দাপ্তরিক/আবাসিক টেলিফোন বিল সংগ্রহ করে বিল তৈরীপূর্বক বাজেট শাখায় প্রেরণ করা।

৬.    বিল পরিশোধ নিশ্চিতকরণের জন্য টিএন্ডটি রেজিষ্টারে এন্ট্রিকরণ।

৭.    বাজেটে প্রাপ্ত দাপ্তরিক, আবাসিক, ফ্যাক্স, ইন্টারনেটের বরাদ্দ সকল ইউনিটের অনূকূলে সূষম বিভাজন পূর্বক বরাদ্দ প্রদানের জন্য বাজেট শাখায় প্রেরণ।

৮.   ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট লাইন সংযোগ ও বিল পরিশোধ সংক্রান্ত কার্যক্রম।

৯.    এসএমএস গেইটওয়ের বিল সংগ্রহ করা এবং বিল পরিশোধের জন্য নথি উপস্থাপন ।

১০.   মোবাইল ফোনসেট ও সিম বরাদ্দ, বিজনেস সলিউশন সিম রিপ্লেসমেন্ট ও সিম রি- কানেকশন কার্যক্রম গ্রহণ।

১১.   আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী সদর দপ্তরের দাপ্তরিক, আবাসিক ও পিএবিএক্স টেলিফোন সেট/সরঞ্জামাদি মেরামত করা।

১২.   ওয়াকিটকি ও বেতার যন্ত্র মেরামত করণ। রিপিটার, টাওয়ার ও বেসসেট টাওয়ার স্থাপনের জন্য কার্যক্রম গ্রহণ।

১৩.   মোবাইল নীতিমালা প্রনয়ন।

 

চাটার্স অফ ডিউটিসঃ

ক.    পরিচালক জেনারেল  যোগযোগ বিষয়ক পলিসি প্রভাবিত করার জন্য পরিচালক (যোগাযোগ) কে পরামর্শ দিবেন।

খ.    উত্তর বঙ্গের মধ্যে এককতা নিশ্চিত করার জন্য ব্যাটালিয়ন আনসার সিগন্যাল কর্মীদের প্রশিক্ষণের প্রশ্নে পরামর্শ প্রদান।

গ.    আনসার বাহিনীর জন্য যোগাযোগ ব্যবস্থার এবং রক্ষণাবেক্ষণের পরিকল্পনা।

ঘ.    প্রস্তুতি এবং প্রযুক্তিগত নির্দেশনা প্রদান, সংকেত পরিকল্পনা, সংকেত আদেশ এবং যোগাযোগ বিষয়ের উপর প্রশিক্ষণ নির্দেশন।

ঙ.    ব্যাটালিয়ন পরিদর্শন এবং প্রযুক্তিগত পরিদর্শন, সিগন্যাল কর্মীদের এবং সরঞ্জামাদির কার্যকরী ও প্রযুক্তিগত দক্ষতার মূল্যায়ন।

চ.    সিগন্যাল ইউনিটের জন্য প্রযুক্তিগত নিয়ন্ত্রন।

ছ.    ফটোগ্রাফিক উপাদান মূল্যায়ন, পরিবত©ন, বিধান এবং বন্টনসহ যোগাযোগ নিরাপত্তা।

জ.    কেন্দ্রীয়ভাবে সিগন্যাল কর্মীদের প্রশিক্ষণের পরিকল্পনা গ্রহন করা।

ঝ.    সাংগঠনিক প্রতিষ্ঠান এবং সিগন্যাল সরঞ্জামাদির পর্যায়ক্রমিক পর্যালোচনা।

ঞ.    ইলেক্ট্রনিক্স কল্যাণের জন্য নিয়ন্ত্রন ও নীতিমালার ব্যবস্থা।

ট.    সেনাবাহিনী, এয়ারফোর্স, নেভি, বিজিবি, পুলিশ ও টিএন্ডটির সাথে যোগাযোগ ।

ঠ.    আনসার বাহিনীর যোগাযোগ ব্যবস্থার রক্ষনাবেক্ষনের জন্য প্রয়োজনীয় সকল ব্যাটালিয়নের পরিকল্পনা, সংগ্রহ ও বিতরণ।

ড.    আনসার বাহিনীর মধ্যে উন্নয়ন এবং টেলিযোগাযোগ সরঞ্জাম এবং মানোন্নয়ন করা এবং মানদন্ডে উদ্বেগ গ্রহন যেমন সরঞ্জাম উপযুক্ততা নির্ধারন করতে ট্রায়াল গ্রহন।

ঢ.    আনসার বাহিনীর দক্ষতা কার্যকরীকরন বা যোগাযোগের জন্য প্রয়োজনীয় সিগন্যাল সরঞ্জাম এবং কেনাকাটার জন্য বাজেটের প্রক্কলন প্রস্তুত করা।

 

২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরের যোগাযোগ শাখার সফলতাঃ

১.    বর্ণিত অর্থ বছরে বাহিনীতে ভিডিও কনফারেন্স সিষ্টেম চালুর বিষয়ে যোগাযোগ শাখা সক্রিয়ভাবে উদ্দেগ গ্রহণ করেছে।

২.    SMS Gateway এর মাধ্যমে প্রেরিত SMS এর কলরেট উল্লেখ্যযোগ্য হারে কমিয়েছে।

৩.    নব গঠিত আনসার ষ্ট্রাইকিং ফোর্স (এএসএফ)এর বেতার যোগাযোগ সহজ ও নির্বিঘ্ন করার উদ্দেশ্যে কড়াইলের টিএন্ডটি টাওয়ারে রিপিটার স্থাপনের উদ্যেগ গ্রহন করা হয়েছে।

৪.    সদর দপ্তরে ব্যবহৃত ইন্টারনেট ২৯ এমবিপিএস হতে ১০০ এমবিপিএসে উন্নিত করা হয়েছে।

৫.    বর্ণিত অর্থ বছরে ৫০টি ওয়াকিটকি সেট (এএসএফ-৪৮টি এবং উইং শাখায়-০২টি) বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।


Share with :
Facebook Facebook